https://public-voice24.com/wp-content/uploads/2022/03/favicon.ico-300x300.png
ঢাকামঙ্গলবার , ৭ই ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ

বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি ভাঙচুরকারীকে মনোনয়ন দেয়ায়় ভূঞাপুরে মানববন্ধন

পাবলিক ভয়েস
নভেম্বর ২৭, ২০২১ ৮:২৩ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

কোরবান আলী তালুকদার : আগামী ২৬ ডিসেম্বর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে টাঙ্গাইলের ভূঞাপুর উপজেলার গোবিন্দাসী ইউনিয়নে বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি ভাঙচুরের প্রধান আসামি মোঃ দুলাল হোসেন চকদারকে নৌকার মনোনয়ন দেওয়ায় ভূঞাপুরে মানববন্ধন করেছে গোবিন্দাসী ইউনিয়নবাসী। শনিবার (২৬ নভেম্বর) সকালে উপজেলার গোবিন্দাসী টি মোড়ে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

গোবিন্দাসী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি, সাবেক চেয়ারম্যান, বঙ্গবন্ধুর হত্যার প্রতিবাদকারী ও আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী বীর মুক্তিযোদ্ধা ইকরাম উদ্দিন তারা মৃধা ও ইবরাহীম খাঁ সরকারি কলেজের সাবেক জিএস, উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি ও সাবেক চেয়ারম্যান মোঃ আমিনুল ইসলাম আমিনের পরিবর্তে মোঃ দুলাল হোসেন চকদারকে নৌকার মনোনয়ন দেওয়ায় এ মানববন্ধন করেছে ইউনিয়নবাসী।

মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন- গোবিন্দাসী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা ইকরাম উদ্দিন তারা মৃধা, গোবিন্দাসী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি, সাবেক চেয়ারম্যান মোঃ আমিনুল ইসলাম আমিন, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি জহুরুল ইসলাম, নাজমুল হোসেন তারা, জয়নাল আবেদিন, মোঃ আমিন মন্ডল, যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম রফিক, বেলায়েত হোসেন সহ ইউনিয়নের বিভিন্ন স্তরের নেতাকর্মীরা এ মানববন্ধনে অংশগ্রহণ করেন।

মানববন্ধনে বক্তারা অভিযোগ করে বলেন, ইকরাম উদ্দিন তারা মৃধা ও আমিনুল ইসলাম আমিন জন্ম লগ্ন থেকেই আওয়ামী লীগের সঙ্গে কাজ করে আসছে এবং আ’লীগের মনোনয়নে বিপুল ভোটের ব্যবধানে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়ে দায়িত্ব পালন করেন। তাদেরকে বাদ দিয়ে বঙ্গবন্ধুর ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি ভাঙচুরের প্রধান আসামি, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক দুলাল হোসেন চকদারকে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে। তিনি দীর্ঘদিন ধরে বিএনপির রাজনীতির সঙ্গে সম্পৃক্ত ছিল। তাকে মনোনয়ন দেওয়ায় ইউনিয়নবাসী চরমভাবে ক্ষুব্ধ হয়েছে। এ কারণে দুলাল হোসেন চকদারের পরিবর্তে ইকরাম উদ্দিন তারা মৃধা অথবা আমিনুল ইসলাম আমিনকে নৌকার মনোনয়ন দেওয়ার জন্য বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতি ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে পুনঃ বিবেচনা করার দাবি জানাচ্ছি়।