https://public-voice24.com/wp-content/uploads/2022/03/favicon.ico-300x300.png
ঢাকাশনিবার , ৪ঠা ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ

রাত পোহালেই জামালপুরে দেবর ভাবীর লড়াই

পাবলিক ভয়েস
জানুয়ারি ৪, ২০২২ ৩:০০ অপরাহ্ণ
Link Copied!

রাত পোহালেই জামালপুরে দেবর ভাবীর লড়াই

আগামীকাল ৫ জানুয়ারি পঞ্চম ধাপে জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জ উপজেলার ৪টি ইউনিয়ন পরিষদে অনুষ্ঠিত হবে ইউপি নির্বাচনের ভোটগ্রহণ।

সব ইউনিয়নের নির্বাচনী আলোচনা-সমালোচনা, প্রচার-প্রচারণা ছাপিয়ে উপজেলার হাতীভাঙ্গা ইউনিয়নের দেবর-ভাবির ভোটযুদ্ধের লড়াইয়ের বিষয়টি তুঙ্গে উঠে এসেছে। এ নিয়ে উপজেলাজুড়ে চলতে নানান আলোচনা।

ওই দুই প্রার্থী হলেন- দেওয়ানগঞ্জ উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান মরহুম দৌলত হোসেন চৌধুরীর স্ত্রী ও হাতীভাঙ্গা ইউনিয়ন মহিলা লীগের সহ-সভাপতি মোছা. মাহমুদা চৌধুরী (নৌকা প্রতীক) এবং ইউনিয়ন বিএনপির আহ্বায়ক মো. তাজুল ইসলাম চৌধুরী (ঘোড়া প্রতীক)

দেবর ভাবী হলেও নির্বাচনে তারা ভিন্ন দল ও ভিন্ন প্রতীকে প্রচার প্রচারনায় নির্বাচনের শেষ সময়ে মাঠ গরম করে তুলছেন। যে যার অবস্থান গড়তে শুরু থেকে মরিয়া হয়ে উঠেছেন। সারা ইউনিয়ন জুড়ে পোষ্টার, লিপলেট ভরে তুলেছেন। ভোট চেয়ে দুজনেই পৃথক পৃথক ভাবে জনসংযোগ, জনসভা ও ভোটারদের দ্বারে দ্বারে ভোট চেয়ে ঘুরছেন। এ লড়ায়ে জিততে হবে এমন প্রতিজ্ঞায় তারা দুজনেই বদ্ধপরিকর। দেবর ভাবী এ ভোট যুদ্ধের লড়াইয়ে বিব্রত হয়ে পরেছেন সাধারণ ভোটারগণ।

এ ইউনিয়ন আওমায়ী লীগে মনোনীত প্রার্থী মাহমুদা চৌধুরী (নৌকা) ছাড়াও আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী আবুল কালাম আজাদ (মটর সাইকেল), মো. জুনায়েত হোসেন (আনারস)। বিএনপির নেতা স্বতন্ত্রের ব্যানারে আপন দেবর তাজুল ইসলাম চৌধুরী (ঘোড়া), সাবেক চেয়ারম্যান মো. আবু হানিফ (চশমা) এবং জাতীয় পার্টির ফজলুল করিম (লাঙ্গল) প্রতীকে নির্বাচন করছেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে প্রতীকের ( ভাবী) মাহমুদা চৌধুরী বলেন, ‘তাজুল ইসলামকে বার বার নির্বাচন না করতে বলা হলেও সে কারও কথা রাখেনি। দল আমাকে নৌকা প্রতীক দিয়েছে। ইউনিয়নবাসীও আমাকে সমর্থন করছেন। আশা করছি- আমিই জিতবো।’

তার প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী তাজুল ইসলাম চৌধুরী ( দেবর) বলেন, ভোটের লড়াইয়ে দেবর-ভাবি সম্পর্কের কোনো স্থান নেই। জনগণ যাকে চাইবেন, তাকেই ভোট দেবেন। যেভাবে নির্বাচন করছি এবং ভোটারদের সাড়া পাচ্ছি, সুষ্ঠু ভোট হলে আমিই জয়লাভ করবো।’

দেওয়ানগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) কামরুন্নাহার শেফা বলেন, ‘বিষয়টি আমরাও শুনেছি। তবে দুজনকেই আমরা আলাদা প্রার্থী হিসেবেই ভাবছি। নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে উপজেলা প্রশাসন সর্বাত্মক চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।’

সাকিব আল হাসান নাহিদ, জামালপুর।