https://public-voice24.com/wp-content/uploads/2022/03/favicon.ico-300x300.png
ঢাকাশুক্রবার , ২৭শে জানুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ

রাশিয়া-ইউক্রেনের তৃতীয় বৈঠকে কিছুটা অগ্রগতি

পাবলিক ভয়েস
মার্চ ৮, ২০২২ ১:৪৮ অপরাহ্ণ
Link Copied!

অবিলম্বে যুদ্ধবিরতি কার্যকর ও সেনা ফিরিয়ে নেওয়ার লক্ষ্যে বেলারুশে তৃতীয় দফা বৈঠক করেছে ইউক্রেন-রাশিয়া। বিবিসি জানিয়েছে, তৃতীয় বৈঠকে উভয় পক্ষের মধ্যে কিছুটা অগ্রগতি হয়েছে। চতুর্থ বৈঠকে কার্যকর কোন পদক্ষেপ দেখা যাবে বলে আশা করছে উভয় পক্ষ।

ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট দপ্তরের এক উপদেষ্টার বরাতে বিবিসি জানিয়েছে, মানবিক করিডোরের বিষয়ে ‘নগণ্য ইতিবাচক’ অগ্রগতি হয়েছে।

ইউক্রেনের প্রতিনিধিদলের এক সদস্যের বরাতে রয়টার্স জানিয়েছে, সীমান্ত পরিস্থিতির তাৎপর্যপূর্ণ উন্নতিতে কোনো চুক্তিতে পৌঁছানো যায়নি।

এর আগের দুটি বৈঠকে কোনো সিদ্ধান্ত ছাড়াই উভয় পক্ষের মধ্যে আলোচনা বন্ধ হয়।

ক্রেমলিনের এক সহযোগী রাশিয়ার একটি টিভি চ্যানেলে বলেন, বেলারুশের সংলাপ ‘আমাদের প্রত্যাশা পূরণ করতে ব্যর্থ হয়েছে’।

তবে রুশ প্রসিডেন্ট পুতিন বলেছেন, ইউক্রেন কখনো ন্যাটোতে যোগদান করবে না, এ নিশ্চয়তা পাওয়ার পরই সেনা প্রত্যাহার ও যুদ্ধবিরতি কার্যকর হবে। অন্যথায় সেখানে হামলা অব্যাহত থাকবে।

হামলা শুরুর কয়েকদিন পর পুতিন ইউক্রেনের সেনাবাহিনীকে ক্ষমতা দখলের আহ্বান জানিয়েছিলেন। তার সে আহ্বানে সাড়া দেয়নি সেনাবাহিনী। তারা রুশ সেনাদের মোকাবেলায় সর্বোচ্চ প্রতিরোধ গড়ে তোলার অঙ্গীকার করে।

সামরিক অভিযান শুরুর পূর্বে অনমনীয় অবস্থানে থাকলেও প্রেসিডেন্ট জেলেনস্কি বর্তমানে কিছুটা নমনীয় হয়েছেন। দ্রুত কূটনৈতিক আলোচনার মাধ্যমে সংকটের সমাধান চান।

ইউক্রেনের পশ্চিমা মিত্ররাও নিষেধাজ্ঞার পাশাপাশি কূটনৈতিক আলোচনার মাধ্যমে দ্রুত যুদ্ধ বন্ধের চেষ্টা করছে। রাশিয়ার বিভিন্ন ব্যাংকসহ দেশটির ওপর নজিরবিহীন নিষেধাজ্ঞা আরোপ করছে। দ্রুত হামলা বন্ধ না করলে রাশিয়া থেকে তেল আমদানি বন্ধেরও হুঁশিয়ারি দিয়েছে। বিপরীতে রাশিয়া ইউরোপে গ্যাস সরবরাহ বন্ধের হুমকি দিয়েছে।