https://public-voice24.com/wp-content/uploads/2022/03/favicon.ico-300x300.png
ঢাকামঙ্গলবার , ৭ই ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ

মরদেহ পড়ে আছে মারিউপোলের রাস্তায়

পাবলিক ভয়েস
মার্চ ২১, ২০২২ ২:১৮ অপরাহ্ণ
Link Copied!

এ যেন এক নরক। ইউক্রেনের মারিউপোল শহরের এমপি ইয়ারোস্লাভ ঝেলেজনিয়াক শহরের পরিস্থিতি ঠিক এভাবেই বর্ণনা করেছেন। সেখানকার পরিস্থিতি সত্যিই ভয়াবহ।

রুশ বাহিনী মারিউপোল শহর ঘিরে ফেলেছে। সেখানে করিডোর তৈরি করতে দেওয়া হয়নি। ফলে মানবিক সহায়তা সরবরাহের অনুমতি মেলেনি।

ওই শহরে প্রায় তিন লাখ বাসিন্দা আটকা পড়েছে। দীর্ঘদিন ধরে লোকজন বিদ্যুৎবিচ্ছিন্ন অবস্থায় দিন কাটাচ্ছেন। সেখানে খাবার পানির সংকটও তীব্র হয়ে উঠেছে। ওষুধ সরবরাহও অনেক কমে গেছে। দিন দিন সংকট আরও বাড়ছে। ফলে অনাহারে দিন কাটাচ্ছে মানুষ, বিভিন্ন ধরনের রোগও দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছে।

কর্মকর্তারা জানিয়েছে স্থলে, আকাশে এবং সাগরে রাশিয়ার হামলা চলমান থাকায় লোকজনকে বাড়ি-ঘরের বেজমেন্ট বা কোনো আশ্রয়কেন্দ্রে দিন কাটাতে হচ্ছে।

সামজিক মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ছবিতে দেখা গেছে শহরটি ধ্বংসস্তূপে পরিণত হয়েছে। আশেপাশের এলাকাও ধ্বংস হয়ে গেছে। শহরের মেয়র ভাদিম বয়চেনকো জানান, ৮০ শতাংশ ভবনই হয় ধ্বংস হয়ে গেছে বা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

রাস্তা-ঘাটে মরদেহ পড়ে আছে। ভয়ে কেউ মরদেহগুলো সরানোর জন্যও এগিয়ে আসছে না। তবে মরদেহগুলো উদ্ধার করার সুযোগ পেলেই সবগুলো একসঙ্গে গণকবর দেওয়া হচ্ছে।

এদিকে, যুদ্ধ থামাতে রাশিয়া ও ইউক্রেনের মধ্যে আলোচনার অগ্রগতি হয়েছে ও উভয় পক্ষই একটি সমঝোতা চুক্তির দিকে এগিয়ে যাচ্ছে বলে জানিয়েছে তুরস্ক।

রোববার (২০ মার্চ) তুরস্কের দক্ষিণাঞ্চলীয় প্রদেশ আন্টালিয়া থেকে দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী কাভুসোগলু একটি লাইভ অনুষ্ঠানে রাশিয়া-ইউক্রেন চুক্তি নিয়ে কথা বলেন। এ সময় তিনি বলেন, যখন যুদ্ধ চলছে ও বেসামরিক মানুষ নিহত হচ্ছে, তখন চুক্তিতে আসা সহজ ব্যাপার নয়। তবে আমরা বলতে চাই যে এখনও চুক্তি করার সুযোগ রয়েছে।

কাভুসোগলু বলেন, তুরস্ক দুই দেশের আলোচনাকারী দলের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছে। তবে তিনি আলোচনার বিস্তারিত জানাতে অস্বীকার করে বলেন, আমরা এক্ষেত্রে একটি প্রতিশ্রুতিশীল মধ্যস্থতা ও সহায়তাকারী হিসেবে কাজ করছি। তিনি বলেন, আমরা দেখতে পাচ্ছি দুই পক্ষই (রাশিয়া ও ইউক্রেন) সমঝোতা চুক্তির ব্যাপারে অনেকদূর এগিয়েছে।