https://public-voice24.com/wp-content/uploads/2022/03/favicon.ico-300x300.png
ঢাকারবিবার , ৫ই ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ

সুজনঃ আইপিএলের জন্য তাসকিনের মতো পেসারকে হারাতে চাই না

পাবলিক ভয়েস
মার্চ ২১, ২০২২ ৭:৩৫ অপরাহ্ণ
Link Copied!

দক্ষিণ আফ্রিকায় সিরিজ খেলছে বাংলাদেশ। এরই মধ্যে আইপিএলে খেলার জন্য প্রস্তাব এসেছে তাসকিন আহমেদের কাছে। বিসিবির কাছেই এ বিষয়ে ফোন করেছে আইপিএলের নতুন ফ্রাঞ্চাইজি লখনৌ সুপার জায়ান্টের মেন্টর গৌতম গম্ভীর।

তবে সুবর্ণ সুযোগ এলেও তাসকিন আইপিএলে খেলতে যাবেন না। দেশের প্রতি দায়িত্ববোধ থেকে তিনি আইপিএলকে ‘না’ করে দিচ্ছেন। বিসিবির পক্ষ থেকেও জানানো হয়েছে এ তথ্য। এমনকি বিসিবিও চায় না, এই মুহূর্তে তাসকিন আইপিএল খেলতে যাক। বিসিবির প্রধান নির্বাহী জানিয়ে দিয়েছেন, এ মুহূর্তে তাসকিনকে এনওসি দেয়া হবে না।

দক্ষিণ আফ্রিকায় তাসকিনের আইপিএলে খেলা না খেলা নিয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেছেন টিম ডিরেক্টর খালেদ মাহমুদ সুজন। তিনি জানিয়েছেন, তাসকিনকে এখন দলের জন্যই সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন। আইপিএলের জন্য তাসকিনকে আমরা হারাতে চাই না।

সুজনের কাছে জানতে চাওয়া হয়, ‘বিসিবির সিইও বলেছেন, এনওসি দেয়া হবে না। টিম ডিরেক্টর হিসেবে আপনার চাওয়া কী? তাসকিনের আইপিএলে খেলার ব্যাপারে আপনি কী বলবেন?’

জবাবে খালেদ মাহমুদ সুজন জানান, তাসকিন এ মুহূর্তে বাংলাদেশের একজন সেরা বোলার। দক্ষিণ আফ্রিকার মত কঠিন কন্ডিশনে তাসকিনের প্রয়োজন আছে। এ কারণে তাকে ছাড়া যাবে না।

সুজন বলেন, ‘এটা তো ওর জন্য একটা দারুণ সুযোগ ছিল। তবে, সবচেয়ে বড় কথা, এখানে কিন্তু আমাদের জন্য একটা বড় টেস্ট ম্যাচ অপেক্ষা করছে। তাসকিন এখন আমাদের টপ লেভেলের বোলার, সত্যি কথা। দারুণ ফর্মে আছে।’

দক্ষিণ আফ্রিকায় বাংলাদেশ টেস্ট জিততে চায়, সে জন্য তাসকিনের মত বোলার দরকার আছে বলে জানান সুজন। তিনি বলেন, ‘আমরা তো এখানে টেস্ট জিততে চাই আসলে। সাউথ আফ্রিকা হয়তো খেলোয়াড় ছেড়ে দেয়ার সাহস দেখাতে পারে, আমরা তো সেটা দেখাতে পারি না। আমাদের কিন্তু টেস্ট জেতাটা খুব গুরুত্বপূর্ণ। দক্ষিণ আফ্রিকায় ডিফারেন্ট কন্ডিশন। এখানে ফাস্ট বোলারদের একটা হেল্প থাকবে। তো এখানে তাসকিনের মত পেসারকে সহজে হারাতে চাই না আমরা।’

তবে এই সুযোগটা তাসকিনকে দিতে পারছেন না বলে কিছুটা হলেও আফসোস আছে সুজনের। তিনি বলেন, ‘তবে এমন একটা সময়ে এ সুযোগ এসেছে যে, ওর জন্যই খারাপ লাগছে। এটা ওর জন্য একটা বড় অপরচুনিটি ছিল। আবার দেশের কথাটাও চিন্তা করতে হবে। দেশ তো আগে।’