https://public-voice24.com/wp-content/uploads/2022/03/favicon.ico-300x300.png
ঢাকাশনিবার , ৪ঠা ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ

জেলেনস্কির দাবি ইরপিন পুনরুদ্ধারের

পাবলিক ভয়েস
মার্চ ২৯, ২০২২ ১:২৮ অপরাহ্ণ
Link Copied!

রুশ বাহিনীর কাছ থেকে কিয়েভের শহরতলী ইরপিন পুনরুদ্ধার করেছে ইউক্রেনীয় বাহিনী। এমন দাবি করেছেন ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি। এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা।

রাশিয়ান বাহিনী এখনও কিয়েভের উত্তরের অঞ্চলগুলো নিয়ন্ত্রণ করছে বলেও জানিয়েছেন জেলেনস্কি।

সোমবার রাতে দেওয়া ভিডিও ভাষণে তিনি বলেন, ‘ইরপিন ও কিয়েভ থেকে দখলদারদের হটিয়ে দেওয়া হয়েছে। তবে রুশ বাহিনী এখনও কিয়েভের উত্তরের অঞ্চলগুলোর নিয়ন্ত্রণ ধরে রেখেছে। তাদের সম্পদ ও জনবল আছে। তারা নিজেদের ধ্বংসপ্রাপ্ত ইউনিটগুলো পুনর্গঠনের চেষ্টা করছে।’

এদিকে বুধবার তুরস্কে ফের মুখোমুখি আলোচনায় বসছে ইউক্রেন ও রাশিয়া। এমন সময় এই আলোচনা অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে যখন ইউক্রেনে রুশ বাহিনীর অগ্রযাত্রা স্থবির হয়ে পড়েছে। রাজধানী কিয়েভকে ঘেরাও এবং সরকারি বাহিনীকে অচল করতে ব্যর্থ হওয়ার পর গত সপ্তাহে রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, তারা পূর্ব ইউক্রেনে বিচ্ছিন্নতাবাদীদের নিয়ন্ত্রিত এলাকা সম্প্রসারণে মনোযোগ কেন্দ্রীভূত করছে।

কিয়েভের পক্ষ থেকে ইঙ্গিত দেওয়া হয়েছে, রুশ হানাদার বাহিনী ইউক্রেনে কঠোর প্রতিরোধের মুখে পড়েছে, তাদের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। তারা কৌশলগত ও রসদজনিত সংকটে পড়েছে। এমন অবস্থায় মস্কো হয়তো কিয়েভে নতুন সরকার বসানোর পরিকল্পনা বাস্তবায়ন ম্রিয়মাণ হওয়ার ফলে সমঝোতায় রাজি হতে পারে।

উভয় পক্ষই যুদ্ধ বন্ধের একটি সম্ভাব্য উপায়ের কথা বলছে। যার আওতায় ইউক্রেন হয়তো এক ধরনের আনুষ্ঠানিক নিরপেক্ষ অবস্থান নিতে পারে। কিন্তু ডনবাস এবং ২০১৪ সালে মস্কোর দখল করা ক্রিমিয়া অঞ্চলের ভূখণ্ডগত দাবি থেকে এখনও পর্যন্ত কেউ পিছু হটেনি।

উল্লেখ্য, ইউক্রেনে ২৪ ফেব্রুয়ারি শুরু হওয়ার রাশিয়ার আক্রমণে কয়েক হাজার মানুষের প্রাণহানি হয়েছে। এক কোটিরও বেশি মানুষ ঘরবাড়ি ছেড়েছেন। দেশ ছেড়ে পালিয়ে বিদেশে আশ্রয় নিয়েছেন ৪০ লাখের মতো মানুষ।