Thursday 29th September 2022

পাবলিক ভয়েস

পৃথিবীর মানুষের জন্য একটি কণ্ঠস্বর

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে রিকশা সংকট

মার্চ ৩১, ২০২২ by পাবলিক ভয়েস
No Comments

প্রায় তিন মাস ধরে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) অভ্যন্তরে বন্ধ রয়েছে ব্যাটারিচালিত রিকশা। প্যাডেল রিকশা থাকলেও সংখ্যায় কম। তার ওপর ভাড়া বেশি। এতে বিপাকে পড়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত শিক্ষার্থীসহ কর্মকর্তা-কর্মচারীরা।

জানা গেছে, চলতি বছরের জানুয়ারিতে দুইটি ব্যাটারিচালিত রিকশার মুখোমুখি সংঘর্ষে মাথায় গুরুতর আঘাত পেয়ে এক শিক্ষার্থী আহত হন। এই ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসন সব ব্যাটারিচালিত রিকশা চলাচল বন্ধ করে দেয়।

পরে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন প্যাডেল চালিত রিকশা চলাচলের অনুমতি দেয় ও বিশ্ববিদ্যালয়ের অভ্যন্তরে চক্রাকার বাস সার্ভিস চালু করে। প্যাডেল চালিত রিকশার অনুমতি দেওয়া হলেও শিক্ষার্থী অনুযায়ী তা কম হওয়ায় ক্লাস, পরীক্ষাসহ বিভিন্ন জরুরি কাজে বিশ্ববিদ্যালয়ের এক স্থান থেকে অন্য স্থানে যাতায়াতে বিপাকে পড়তে হচ্ছে। অনেক শিক্ষার্থী রিকশাচালকদের বিরুদ্ধে ইচ্ছেমতো ভাড়া আদায়ের অভিযোগও করেছেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ৪৬ ব্যাচের সরকার ও রাজনীতি বিভাগের শিক্ষার্থী ফারহান আনজুম করিম বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয়ের এক স্থান থেকে অন্য স্থানে যাওয়ার সময় রিকশার সংকট তীব্রভাবে অনুভব হয়। ক্যাম্পাসের উঁচু-নিচু রাস্তার কারণে প্যাডেল রিকশা চালানো কঠিন। এ জন্যই রিকশাচালকরাও বেশি ভাড়া আদায় করছে। সমাজবিজ্ঞান ভবন থেকে আল বেরুনী হলে যেতে ৩০ টাকা ভাড়া দাবি করছে। সাধারণ শিক্ষার্থীদের পক্ষে এতো ভাড়া বহন খুবই কঠিন। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কাছে ক্যাম্পাসে রিকশা বাড়ানোর দাবি করছি অথবা পরিকল্পিতভাবে ব্যাটারিচালিত রিকশা চালুর ব্যবস্থা করা হোক।’

লোকপ্রশাসন বিভাগের ৪৯ ব্যাচের শিক্ষার্থী সুমাইয়া আক্তার সিনথি বলেন, ‘রিকশা সংকটে ভোগান্তি অনেক বেড়েছে। জরুরি প্রয়োজনে কোথাও যেতে হলে অনেক সমস্যায় পড়তে হচ্ছে। হেঁটে যেতে গিয়ে একদিকে সময়ের অপচয় ও অন্যদিকে শারীরিক কষ্ট বেড়েছে। সঙ্গে ভাড়া বৃদ্ধির ভোগান্তি তো আছেই। অসুস্থতার মতো জরুরি মুহূর্তে যানবাহন পাওয়া না গেলে অসহায় অবস্থায় পড়তে হয়। দুর্ঘটনা এড়ানোর জন্য পরিকল্পিত ব্যবস্থা নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের অভ্যন্তরে রিকশার সংখ্যা বাড়ানো উচিত।’

এদিকে, শিক্ষার্থীদের যাতায়াতের জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের অভ্যন্তরে চক্রাকার বাস সার্ভিস চালু করলেও তা পর্যাপ্ত নয় বলে দাবি করেছেন শিক্ষার্থীসহ বিভিন্ন সামাজিক ও রাজনৈতিক সংগঠনের নেতাকর্মীরা। তাদের দাবি, বাস হাতছাড়া হলে পরবর্তী বাসের জন্য এক ঘণ্টা অপেক্ষা করা সময়ের অপচয়। এ ছাড়া জরুরি প্রয়োজনে বাসের জন্য অপেক্ষা করাও সম্ভব নয়।

ছাত্র ইউনিয়ন জাবি শাখার সভাপতি রাকিবুল রনি বলেন, ‘চক্রাকার বাস শিক্ষার্থীদের জন্য অপর্যাপ্ত। রাতে বাস চলাচলের সময় বৃদ্ধির জন্য পরিবহন অফিসে লিখিত অভিযোগ দেওয়া হলেও তারা পদক্ষেপ নেয়নি। এ ছাড়া রিকশা সংকটের সমাধান নিয়ে উপাচার্য ও রেজিস্ট্রার বরাবর দুইবার প্রস্তাবনা দেওয়া হয়েছে। তারা আগ্রহ দেখালেও তা বাস্তবায়ন করেনি।’

তবে এ বিষয়ে জানতে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার রহিমা কানিজের মোবাইল ফোনে একাধিকবার কল করা হলেও তিনি রিসিভ করেননি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.