https://public-voice24.com/wp-content/uploads/2022/03/favicon.ico-300x300.png
ঢাকাবৃহস্পতিবার , ৯ই ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ

শ্রীলঙ্কার অর্থনৈতিক সংকটঃ সাঙ্গাকারা-জয়াবর্ধনে আওয়াজ তুললেন

পাবলিক ভয়েস
এপ্রিল ৫, ২০২২ ২:২২ অপরাহ্ণ
Link Copied!

২২ গজে এক সময় সতীর্থ ছিলেন মাহেলা জয়াবর্ধনে ও ‍কুমার সাঙ্গাকারা। দলের কঠিন পরিস্থিতি সামাল দিতে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে লড়াই করেছেন। তাই শ্রীলঙ্কার বর্তমান অর্থনৈতিক সংকটে সাধারণ মানুষদের মতো সরকারের বিরুদ্ধে আওয়াজ তুলেছেন তারাও। সব কিছুর জন্য কাঠগড়ায় দাঁড় করাচ্ছেন দেশটির ক্ষমতাসীনদের। তাই রাজনীতি বাদ দিয়ে সবাইকে দেশের স্বার্থে কাজ করার আহ্বান জানিয়েছেন তারা।

পরিস্থিতি এতই দুর্বিষহ যে নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্য যেমন- খাদ্য, জ্বালানি, ওষুধ বিক্রি হচ্ছে চড়া দামে। যার জন্য সাধারণ মানুষ পথে নেমে প্রতিবাদ জানাচ্ছেন। প্রেসিডেন্ট গোতাবায়া রাজাপাকসের পদত্যাগেরও দাবি করা হচ্ছে। এমন পরিস্থিতিতে সাঙ্গাকারা-জয়াবর্ধনে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সরকারের সমালোচনা করে বিবৃতি দিয়েছেন।

বর্তমানে আইপিএল দল রাজস্থানের কোচ হয়ে দায়িত্ব পালন করা সাঙ্গাকারা বলেছেন, ‘শ্রীলঙ্কানরা এমন কঠিন সময় পার করছে, যা কল্পনাও করা যায় না। সাধারণ মানুষ ও তাদের পরিবারগুলো প্রতিটি দিন পার করতে যে ধরনের হতাশার মধ্য দিয়ে যাচ্ছেন, তা সত্যিই হৃদয়বিদারক। প্রতিটি দিনই তাদের জন্য কঠিন হয়ে যাচ্ছে।’

তিনি আরও যোগ করে বলেছেন, ‘সাধারণ মানুষ প্রতিবাদে মুখর হচ্ছে। যা প্রয়োজন সেটার দাবি জানাচ্ছে; একটা সমাধান খুঁজছে।’

তাই সাঙ্গাকারা সরকারকে রাজনৈতিক দুরভিসন্ধি বাদ দিয়ে শ্রীলঙ্কার স্বার্থে কাজ করার আহ্বান জানিয়েছেন, ‘কেউ হয়তো এই প্রতিবাদ মুখরতায় ক্ষুব্ধ হচ্ছেন। আবার কেউ হয়তো এর অযৌক্তিক ফায়দা লুটবার চেষ্টা করছেন। কিন্তু সঠিক পথটা হলো সাধারণ মানুষের দাবিগুলো শোনা। এই সময় ব্যক্তিগত ধ্বংসাত্মক চিন্তা ও রাজনৈতিক দুরভিসন্ধি বাদ দিয়ে শ্রীলঙ্কার স্বার্থে কাজ করা উচিত।’

পরিস্থিতি খুবই আশঙ্কাজনক অবস্থায় পৌঁছে গেছে। রাস্তায় সাধারণ মানুষ নেমে পড়ায় তাদের নিবৃত্ত করতে ব্যবহার করা হচ্ছে পুলিশ। মাহেলা জয়াবর্ধনে অবশ্য এই ধরনের শক্তি প্রয়োগকে স্বাগত জানাচ্ছেন না, ‘শ্রীলঙ্কায় জরুরি অবস্থা আর কারফিউ দেখে আমার মন ব্যথিত। সরকার মানুষের চাহিদার কথা ভুলে যেতে পারে না। তাদের এই প্রতিবাদ করার সব ধরনের অধিকার রয়েছে। তাই সাধারণ মানুষদের আটক কোনওভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়। আমি সত্যিই সেই বীর লঙ্কান আইনজীবীদের নিয়ে গর্ব করি, যারা আটককৃতদের রক্ষায় দ্রুত এগিয়ে এসেছে।’

এর পর রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দদের কাঠগড়ায় তুলে মুম্বাই কোচ বলেছেন, ‘সত্যিকারের নেতারা সব সময় নিজেদের ভুল স্বীকার করে। এখন পরিস্থিতি এমন নিজেদের লোকদের রক্ষা করতে জরুরি পদক্ষেপ নিতে হবে। তাদের ভোগান্তির সময়টায় পাশে থাকতে হবে। এই সমস্যা মানুষের সৃষ্টি। তাই সেসব সমাধানে এখন সঠিক, যোগ্য ব্যক্তিদের প্রয়োজন।’